সুকান্ত কুমার ঘোষ, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) -এর মেকানিকাল ডিপার্টমেন্ট এর '১৩ সিরিজের (২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ) ছাত্র। রোল ১৩২০৮৩। বাসা খুলনার সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলায়। সুকান্তের ব্রেইনের ৮০ শতাংশ এফেক্টেড হয়ে গেছে "ভাইরাল এনকেফেলাইটিস" নামক্ ভাইরাসঘটিত ব্রেইন ইনফেকশনের কারণে। ফুসফুস কাজ করছে তাই লাইফ সাপোর্ট এ রাখা হয়েছে বারডেম হাসপাতালে। টিস্যু ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, স্মৃতি লোপ পাচ্ছে ধীরে ধীরে। প্রায় ৮ দিন যাবত জ্বর ছিল সুকান্তের। ১১ নভেম্বর ভর্তি করা হয় রাজশাহী মেডিকেল কলেজে। সেখান থেকে ঢাকায়, বারডেম এর আইসিউ তে। মৃত্যুর সাথে সংগ্রাম চালাচ্ছে আজ ১১ দিন ধরে। সদা হাস্যজ্জ্বল ছিল না, ছিল বেশ সিরিয়াস ছাত্র আর তার ছিল বন্ধুর জন্য সব কিছু উজাড় করে দেয়ার মানসিকতা। বিসিএস দিয়ে নিজের ফ্যামিলিকেই আগে সাপোর্ট করতে চেয়েছিল। ডাক্তার বলছে ৬ মাস নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে এবং খরচ হবে প্রায় ৬০ লক্ষ টাকা। প্রতিদিন খরচ হচ্ছে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা। গ্রামের কৃষি নির্ভর পরিবার তার। তার পরিবারের পক্ষ থেকে কোন ভাবেই চিকিৎসা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাদের কাছে যা আছে তার সর্বস্ব দিয়ে বাঁচানো হল এতদিন।

আমাদের রুয়েট থেকে এর মধ্যেই সংগ্রহ করা হয়েছে সাড়ে তিন লক্ষ টাকা। সম্পূর্ন টাকার তুলনায় যা খুবই সামান্য এবং এখনও টাকা তোলা চলছে। পুরো টাকাটা শুধুমাত্র আমাদের পক্ষে তোলা সম্ভব নয়। প্রতিদিন যেহেতু খরচ হচ্ছে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা তাই টাকা পাঠাতে একদিনের ব্যর্থতা সুকান্তকে বাঁচানোর পথে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। আপনাদের কাছে এসেছি সুকান্তের জন্য। তার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে পারেন আপনারাই। তাকে ফিরিয়ে আনতে পারে আপনাদের উদার মানসিকতা আর সামান্য আর্থিক সহযোগিতা। নিজে যদি নাও পারি তাহলে শেয়ার করি, ছড়িয়ে দেই নিজেদের বন্ধুর কাছে । হারিয়ে যেন না যায় সুকান্ত, আপনার-আমার সামান্য অবহেলায়।

We need your generous support to save a precious life. You contribution is tax deductible if you contribute through Ankur in USA.